আর্থিকভাবে পিছিয়ে পড়া শ্রেণির পড়ুয়াদের জন্য ডাক্তারির আসন সংখ্যা বাড়ছে। রাজ্যের বিভিন্ন জেলার ৫টি মেডিক্যাল কলেজ মিলিয়ে এই শ্রেণির জন্য মোট আড়াইশোটি আসন বাড়ানো হচ্ছে বলে প্রশাসনিক সূত্রে জানা গেছে। ডায়মন্ড হারবার, রামপুরহাট, পুরুলিয়া, রায়গঞ্জ এবং কোচবিহার মেডিক্যাল কলেজে এমবিবিএস-এর ৫০টি করে আসন বাড়াতে স্বাস্থ্য দফতরকে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। ওই মেডিক্যাল কলেজগুলোতে বর্তমানে ১০০টি করে আসন রয়েছে। আর্থিকভাবে পিছিয়ে পড়া পড়ুয়াদের জন্য ৫০টি করে আসন বাড়িয়ে ওই সবক’টি মেডিক্যাল কলেজের ডাক্তারি স্নাতকের আসন সংখ্যা হচ্ছে দেড়শো।
স্বাস্থ্য দফতর সূত্রে জানা গেছে, আর্থিক ভাবে পিছিয়ে পড়া বা ইকনমিক্যালি ব্যাকওয়ার্ড ক্লাসের পড়ুয়ারা এই আসনগুলিতে ভর্তির সুযোগ পাবেন। এই ক্ষেত্রে ইউজিসি এবং জাতীয় মেডিক্যাল কাউন্সিলের নিয়ম অনুসারে ওই আসনে ছাত্র ভর্তি করা হবে। এমনিতেই রাজ্যে মেডিক্যাল পড়ুয়াদের জন্য স্নাতকোত্তর স্তরে আসন অনেকটাই বেড়েছে। ১৭ মেডিক্যাল কলেজ মিলিয়ে আসন বৃদ্ধির সংখ্যা ৬৫০। কলকাতা ন্যশনাল মেডিক্যাল কলেজ, এসএসকেএম, এনআরএস, আর জি কর সহ ১৭ কলেজে স্নাতকোত্তর স্তরে আসন বেড়েছে। আসন বাড়ছে সাগর দত্ত, ডায়মন্ড হারবার, পুরুলিয়া, রামপুরহাট, কোচবিহার মেডিক্যাল কলেজে। আসন বৃদ্ধির তালিকায় রয়েছে মালদহ, মুর্শিদাবাদ, মেদিনীপুর, বাঁকুড়া, বর্ধমান, উত্তরবঙ্গ ও রায়গঞ্জ মেডিক্যাল কলেজও। এবার আর্থিক ভাবে পিছিয়ে পড়াদের আসন বাড়ায় সামগ্রিক ভাবে ডাক্তারি পড়তে চাওয়া ছেলেমেয়েরা উপকৃত হবেন বলে শিক্ষা মহলের অভিমত।

আরও পড়ুন-বড় সম্মান পেল রাজ্য সরকারের প্রকল্প ‘দুয়ারে সরকার’