আমাদের দৈনন্দিন জীবনে খাওয়া- দাওয়া একটি অপরিহার্য অঙ্গ। ভাত, ডাল তরিতরকারির সঙ্গে থাকে কিছু ফলমূল। আমরা নানা ধরনের ফল খাই। আর বেদানা খেতে কার না ভালো লাগে?
বেদানা একটি আকর্ষণীয়, সুস্বাদু ও পুষ্টিকর ফল। বিশেষ করে অসুস্থ ব্যক্তিদের জন্য এটি উপযুক্ত । অথচ বাজারে এর দাম আকাশছোঁয়া। দোকানে, সারিবদ্ধভাবে সাজানো থাকে লাল টুকটুকে বেদানা। আপনি চাইলেই আপনার বাড়ির ছাদেও চাষ করতে পারেন লাল টুকটুকে বেদানা। যদিও এর জন্য বিস্তর পরিসরের প্রয়োজন নেই। ছোট টবের মধ্যে অনায়াসেই চাষ করতে পারেন এই ফলটি। খরচ সাধ্যের মধ্যে। শুধু চাই একটু পরিচর্যা আর ধৈর্য্য। চলুন জেনে নেওয়া যাক কিভাবে বেদানা ফলানো যায় বাগানে কিংবা বাড়ির ছাদে-

টবের আকৃতি ও মাটি তৈরি

প্রথমে একটি ১২-১৬ ইঞ্চি টব নিন। টব জোগাড় করতে না পারলেও বাড়ির পরিত্যক্ত পুরানো ড্রামই যথেষ্ট। বেলে, দোঁআশ মাটির সাথে গোবর সার, সরষে খোল পচা আর কোকো পিট মিশিয়ে নিন ভালোভাবে। এই মাটিকে টবে দিয়ে জলে ভিজিয়ে প্রায় ১৫ দিন মতো রেখে দিতে হবে। তারপর নীড়ানি দিয়ে খুঁচিয়ে দিলেই ৫-৬ দিন পর মাটি আস্তে আস্তে ঝরঝরে হয়ে যাবে। এই মাটি বেদানা চারা রোপণের জন্য উপযুক্ত।

ছোট চারার পরিচর্যা

বেদানার চারা যেকোনো ভালো নার্সারীতে পেতে পারেন। তবে চেষ্টা করবেন ভালো জাতের চারা নিতে। প্রথমেই যদি অত্যন্ত ছোট চার কেনেন তাহলে তাকে সরাসরি রোদে রাখা যাবে না। এই গাছটি অত্যন্ত রোদ প্রিয়, কিন্তু ছোট চারা রোদে রাখলে শুকিয়ে যেতে পারে। চারা টির সাথে শক্ত একটি কাঠি বেঁধে দিতে হবে।

প্রয়োজনীয় জল ও রোদ

পূর্বেই বলেছি এই গাছ রোদ প্রিয়। তাই এই গাছের ক্ষেত্রে ভীষণ ভাবে প্রয়োজন জল এবং রোদ্দুর। খুব সকালে ও সন্ধ্যা বেলা নিয়মিত গাছের গোড়ায় জল দিতে হবে। কিন্তু খেয়াল রাখবেন গাছের গোড়ায় যেন কোনোভাবেই জল না জমে থাকে। সেজন্য টবের চারিদিকে কয়েকটি ছিদ্র করে দিতে হবে, এবং সেই ছিদ্রগুলো ছোট ছোট ইঁটের টুকরো দিয়ে বন্ধ করে দিতে হবে। গাছটি একটু বড়ো হলেই চেষ্টা করবেন টব টিকে রোদ্দুর পায় এমন স্থানে রেখে দিতে।

আগাছা পরিষ্কার

খেয়াল রাখতে হবে যে গাছে যেন কোনোভাবেই পোকামাকড় বা পিঁপড়ের আক্রমণ না হয়। প্রয়োজন মতো আগাছা পরিষ্কার করে দিতে হবে। গাছের বৃদ্ধির সাথে সাথে প্রয়োজন মতো ডালপালা ও ছেঁটে দেওয়া দরকার।

মাটি পরিবর্তন

চারা রোপণের চার থেকে পাঁচ মাসের পর থেকে প্রতি মাসে দিতে হবে সরষের খোল পচা জল। গাছের বয়স এক বছর হয়ে গেলে টবের মাটি পরিবর্তন করতে হবে । বর্ষা শেষ এবং শীতের শুরু এই সময়ের মাঝামাঝি সময়ে টবের মাটি পরিবর্তন করা উচিত।

ফল দেওয়া শুরু

৩ থেকে ৪ বছর বয়স থেকেই বেদানা গাছে ভালো ফল দেওয়া শুরু করে। ভালো ভাবে ফল পাকতে সময় লাগে প্রায় ৫ থেকে ৬ মাস। ফল পাকলেই পেড়ে নিতে হবে। নাহলে গাছে দীর্ঘদিন ফল থাকলে তা ফেটে যাওয়ার সম্ভাবনা থাকে। একটি মাত্র বেদানা গাছে আপনি ৩০ বছর পর্যন্ত ভালো মানের ফল পাবেন। এভাবে আমরা বাড়ির বাগানে অথবা ছাদে বেদানা গাছ তৈরি করে সুন্দর লাল টুকটুকে বেদানা পেতে পারি।